সর্বশেষ সংবাদ
Home / অপরাধ / বরগুনায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় অতপর গ্রেপ্তার।

বরগুনায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় অতপর গ্রেপ্তার।

এইচ এম কাওসার মাদবার বরগুনা থেকে

বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়নের উত্তর ভাইজোড়া গ্রামের এক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীকে বিভিন্ন অপ্রীতিকর ছবি ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি করেন উত্তর ডৌয়াতলা গ্রামের শফিকুল আলম রাজার ছেলে কাওসার আলম রিন্টু (৩৫)।

চাঁদা দাবির ঘটনা ওই প্রবাসীর স্ত্রী তাৎক্ষণিকভাবে বামনা থানায় জানালে পুলিশ গতকাল সোমবার (১ অক্টোবর) বিকেলে ডৌয়াতলা বজার থেকে আসামিকে আটক করে। রাতেই তার বিরুদ্ধে চাঁদা দাবি, চুরি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন ওই প্রবাসীর স্ত্রী। আজ মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) সকালে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বরগুনা জেল হাজতে পাঠায়।

থানা সূত্রে জানা গেছে, প্রায় পাঁচ মাস আগে ওই প্রবাসীর স্ত্রীর একটি মোবাইল ফোনসেট চুরি হয়। চুরি হওয়া মোবাইলে তার প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি ছিল। সেই ছবি আদনান সামি নামে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে ওই প্রবাসীর স্ত্রীর মেয়ের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পাঠান কাওসার আলম রিন্টু। ওই ছবি তিনি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন এবং প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে বার্তা পাঠান। ঘটনাটি তিনি তখনি বামনা থানায় অবিহিত করলে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ফয়সাল তাকে কিছু টাকা পাঠানোর জন্য তাকে নির্দেশ দেন। পরে ওই নারী আদনান সামি নামের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের বিকাশ নম্বর চান এবং আসামির দেওয়া পার্সোনাল নম্বরে পাঁচ হাজার ২০০ টাকা পাঠান। পুলিশ সেই নম্বর ট্র্যাক করে ঘটনাস্থল থেকে পাঠানো টাকাসহ তাকে আটক করে।

ওই প্রবাসীর স্ত্রী জানান, তিনি নিজের নামের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেন না। তাঁর মেয়ের নামে খোলা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে তিনি সবার সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করেন। সে অ্যাকাউন্টে আসামি কাওসার আলম রিন্টু দীর্ঘদিন ধরে তাঁর ফ্রেন্ড লিস্টে ছিলেন। গত মাসের ২২ তারিখ থেকে তিনি তাঁকে বিভিন্নভাবে ফেসবুকে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। পরে তাঁকে তাঁর নিজের চুরি হওয়া মোবাইলে থাকা স্বামীর সঙ্গে তোলা কয়েকটি ছবি দিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং নানাভাবে হুমকি দেন।

বামনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. ফয়সাল হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়ে তখনি কাওসার আলম রিন্টুকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে চাঁদা দাবি, চুরি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ এনে বামনা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার তাকে বরগুনা জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পাবনায় জোড়া খুন: চেয়ারম্যানসহ ৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : পাবনা সদর উপজেলার ভাড়ারা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ...