সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / হাইমচরে চরভৈরবীর ইউপি মহিলা মেম্বারের স্বামীর বিরুদ্ধে ভাতার টাকা আতœসাতের অভিযোগ

হাইমচরে চরভৈরবীর ইউপি মহিলা মেম্বারের স্বামীর বিরুদ্ধে ভাতার টাকা আতœসাতের অভিযোগ

মোঃ হোসেন গাজী
হাইমচর উপজেলা ৬নং চরভৈরবী ইউনিয়নের ৭-৮ও ৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য নাজমা রহমানের স্বামীর বিরুদ্ধে বয়স্ক ও বিধাব ভাতার টাকা আতœসাতের অভিযোগ করেছে ভাতাভোগীরা।

ভাতাভোগীরা জানান ভাতার তালিকা ভুক্ত হয়ে গত ০৯ অক্টোবর সকালে বয়স্ক ও বিধাবা ভাতা উত্তোলন করার জন্য সোনালী ব্যাংক হাইমচর শাখায় যান।তারা ৪ মহিলা ব্যাংকে যাওয়ার পর ভাতা উত্তোলন করার পার কৌশলে মহিলা সদস্যার স্বামী মোঃ মিজানুর রহমান প্রধানীয়া তাদের হাত হতে ভাতা ৬ হাজার টাকা নিয়ে নেয়। ৬ হাজার টাকার মধ্যে প্রতি জন হতে ৫হাজার টাকা রেখে দিয়ে ১হাজার টাকা ভাতার বইয়ের মধ্যে দিয়ে তাদের হাতে ভাতার বই দিয়ে দেন।ভাতাভোগীরা প্রতিবাদ করলে মিজান প্রধানিয়া অফিসের খরচ দিতে হবে বলে জানান তাদের কে। ভাতা প্রাপ্ত সামসুননাহার স্বামী মৃত মোঃ উছমান বকাউল,বিধবা ভাতা বই নং ১৩৫৪, এ/সি ৮৮৫৭, আছিয়া বেগম স্বামী জলিল বেপারী,বয়স্ক ভাতা বই নং ৩৯২০,এ/সি ৮৮৩৩,হালিমা বেগম স্বামী মৃত খলিলুর রহমান বিধবা ভাতা নং ১৩৩৯, এ/সি নং ৮৮৪২, বিলকিস স্বামী মৃত নূর জামান বকাউল সর্ব সাং দক্ষিন পাড়া বগুলা ওয়ার্ড নং ৭।

ভুক্তভোগীরা গতকাল ১১ অক্টোবর বিকালে সাংবাদিকদের নিকট তাদের টাকার আতœসাতের করুন কাহিনীর বর্ননা দিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পরেন এবং তাদের আতœসাতকৃত টাকা ফিরে পেতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন। ৭নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আলমাছ বকাউল জানান মিজানুর রহমান প্রধানিয়া আমার ওয়ার্ডের অসহায় মহিলাদের টাকা আতœসাতের অভিযোগ পেয়েছি। এধরনের কাজ অত্যন্ত নিন্দনীয়। আমি তদন্ত সাপেক্ষে আতœসাতকারী শাস্তি কামনা করছি।

স্থানিয় ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম ফকির জানান আমার বাড়ীর আশেপাশের ৪জন মহিলা তাদের ভাতার টাকা আতœসাত করেছে এ রকম অভিযোগ আনলে আমি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে অবগত কর্ ি। তিনি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আশ^াস দিয়েছে।
এসম্পর্কে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মিজানুর রহমান প্রধানিয়া জানান আমাকে রাজনৈতিক হেয় প্রতিপন্য করার জন্য ষড়যন্ত্র করছে একটি পক্ষ। তিনি আরো জানান আমার স্ত্রী নাজমা রহমান দুই দুই বার ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিপক্ষ লোকজন সামাজিক ভাবে মান সম্মান ক্ষুন্য করার জন্য তাদের নিজস্ব কার্ডধারী লোক দ্বারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ দিয়েছে।
উপজেলা সমাজসেবা অভিসার ফেরদৌসী বেগম জানান এব্যাপারে আমার কাছে কোন অভিযোগ আসেনি।

 

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ডাঃ দীপু মনি যেখানেই যাচ্ছেন সেখানেই নারী-পুরুষের ঢল নামছে

স্টাফ রিপোর্টার : ডাঃ দীপু মনি যেখানেই যাচ্ছেন সেখানেই নারী-পুরুষের ঢল নামছে। ...