সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে স্থানীয় সংসদ সদস্য পাপুলের নির্দেশে অফিস সহকারী আজাদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন ভিডিও সহ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে স্থানীয় সংসদ সদস্য পাপুলের নির্দেশে অফিস সহকারী আজাদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন ভিডিও সহ

নূরুল আমিন ভূঁইয়া দুলাল, জেলা প্রতিনিধি, লক্ষ্মীপুর ॥

এবার লক্ষ্মীপুরে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীকে ওই স্কুলের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রাণীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগকারী ছাত্রীর বক্তব্যের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে বেশ আলোচিত হয়ে পড়ে। বিষয়টিতে জনমনে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এনিয়ে এলাকায় তীব্র উত্তেজনা বিড়াজ করে। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি দেখে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল গতকাল দুপুরে রায়পুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শিল্পী রাণী রায় সহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নিয়ে বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করেন।

রায়পুর জনকল্যাণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর যৌন হয়রাণীর স্বীকার অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রীটি, তার সহপাঠী ও প্রধান শিক্ষককে জিজ্ঞেসা করে ঘটনাটি সম্পর্কে জানেন সংসদ সদস্য। সাক্ষ্য প্রমাণে ওই স্কুলের অফিস সহকারী তাবারক হোসেন আজাদ কর্তৃক ছাত্রীটি যৌন হয়রানির স্বীকার হয়েছেন বলে প্রমাণ পাওয়া যায়। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর সংসদ সদস্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, ইউপি চেয়ারম্যান ও প্রধান শিক্ষককে অতি দ্রুত তদন্ত করে ইউএনও’র সাথে আলাপ করে আইনী পদক্ষেপ গ্রহন করার নির্দেশ প্রদান করেন।

এসময় সাংসদ কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলকে কাছে পেয়ে তাঁর কাছে কেঁদে কেঁদে যৌন হয়রানির শিকার শিক্ষার্থী তার অভিযোগ তুলে ধরে। এসময় ওই শিক্ষার্থী বলে, অভিযুক্ত অফিস সহকারী তাবারক হোসেন আজাদের বিরুদ্ধে ১৬ এপ্রিল স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে বিচার চেয়েছে। এ ঘটনাটি সকলে জানার পরেও এখন পর্যন্ত বিচার পায়নি। বিষয়টি যাতে আর কাউকে না জানানো হয় এজন্য ছাত্রীটির মায়ের মোবাইল ফোনে হুমকী দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আজাদের কোন ক্ষতি হলে দেখে নেওয়া হবে বলে শাসিয়েছে কয়েকজন যুবক।

এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল বলেন, তাঁরই সংসদীয় এলাকায় স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানির একটি ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া দেখে স্কুলে এসেছেন। এ সময় তিনি ঘটনার শিকার ওই স্কুল ছাএীকে সার্বিক সহায়তা ও ন্যায়বিচারের আশ্বাস দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিল্পী রাণী রায় বলেন, যৌন হয়রানির ঘটনা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এই বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী তাবারক হোসেন আজাদের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ তদন্তে রায়পুর মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকতাকে প্রধান করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, অফিস সহকারী তাবারক হোসেন আজাদের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর এমপি মহোদয় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। তদন্ত রিপোর্ট পেলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বিষয়টি নিয়ে এমপির স্কুলে আগমনের কথা শুনে অভিযুক্ত আজাদের বাবা, মা ও ভাই স্কুলে এসে এমপির পা ধরে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। অভিযোগের বিষয়ে তাবারক হোসেন আজাদ মোবাইল ফোনে বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দৈনিক স্বাধীন বাংলা’র চাঁদপুর প্রতিনিধির নিয়োগ পেলেন অমরেশ দত্ত

স্টাফ রিপোর্টারঃ গণমানুষের কন্ঠস্বর “দৈনিক স্বাধীন বাংলা” পত্রিকার চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি হিসেবে ...