সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / হাইমচরে ৫শ বছরের প্রাচীন মসজিদ কমিটির অর্থ আত্মসাতের প্রতিকার চেয়ে ধর্ম মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

হাইমচরে ৫শ বছরের প্রাচীন মসজিদ কমিটির অর্থ আত্মসাতের প্রতিকার চেয়ে ধর্ম মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

মানিক দাস ॥ চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার ২নং আলগী দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের ভিঙ্গুলিয়া মল্লিক বাড়ি জামে মসজিদ ও মাজারটি ৫শত বছরের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী ধমীয় প্রতিষ্ঠান। এটি মোঘল সম্রাট শাহজাহানের আমলে গভীর জঙ্গলে মসজিদ ও মাজারটি অক্ষত অবস্থায় আবিস্কৃত হয়। তখন হতে এলাকাবাসী প্রজন্ম পরস্পরায় ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানটি রক্ষণাবেক্ষন ও পরিচালনা করে আসছিল। এলাকাবাসী গায়েবী মসজিদ ও মাজার হিসেবে এই প্রতিষ্ঠানে নিয়ত মানত করে টাকা পয়সা দান করে থাকে। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়নের সাথে এই প্রতিষ্ঠানের আয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি পেতে থাকে।

বর্তমানে দান হিসেবে প্রাপ্ত সাপ্তাহিক হিসেবে প্রায় ২০ হাজার টাকা। এলাকাবাসী এ মসজিদ পরিচালনা কমিটির মাধ্যমে একটি ওয়াকফ প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচালিত হত। মসজিদ মাজারের অনুকুলে এলাকাবাসী বহু সম্পত্তি দান করেছে। এই প্রতিষ্ঠানের আয়ের বৃদ্ধির পর গত ২০ বছর হতে অদ্যাবদি প্রতিষ্ঠানের অবস্থান স্থলের একই বাড়ির প্রভাবশালী লোকজন দ্বারা এককভাবে গঠিত ব্যক্তিগত কমিটির মাধ্যমেমসজিদ ও মাজার পরিচালনা করে প্রতিষ্ঠানের আয়কৃত বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাত করে আসছে। প্রতিষ্ঠানের নামে জনসাধারণ কর্তৃক দানকৃত জায়গা জমি বিক্রি করে অর্থ আত্মসাত করেছে।

তদন্তে তা প্রমাণিত হবে। মল্লিক বাড়ির লোকজনের এহেন অবৈধ কর্মকা- সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা এলাকাবাসীর সাথে দুর্ব্যবহার ও মারমুখী হয়ে আমাদের বাড়ির প্রতিষ্ঠান আয় আমরা ভোগ করব বলে হুমকী ধমকী দেয়। এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর কোন কিছু বলার অধিকার নেই বলে হুমকী দেয়। ইতিপূর্বে এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদ, মানববন্ধন, মিটিং, মিছিল সমাবেশ করেছে বলে ওই প্রভাবশালীরা কোন কর্ণপাত না করে হুমকী অব্যাহত রেখেছে। মসজিদ ও মাজারের আয়কৃত অর্থ দ্বারা প্রভাবশালী এলাকাবাসীর নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করারও হুমকী প্রদর্শন করছে।

এলাকাবাসী হুমকী ধমকী ও অবৈধ কর্মকান্ডের জন্য বিক্ষুব্ধ অপ্রীতিকর ঘটনা সৃষ্টির মাধ্যমে শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট হতে পারে বলে তারা ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বরাবর এলাকার মসজিদের মুসুল্লিরা গণস্বাক্ষর সহ মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে একটি লিখিত স্মারকলিপি জমা দেন। একই সাথে ওই স্মারকলিপি শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির এমপি, পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির বিপিএম, পিপিএম, উপ-পরিচালক ইসলামিক ফাউন্ডেশন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাইমচর ও অফিসার ইনচার্জ হাইমচর থানাকেও দেওয়া হয়। ২নং আলগী দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার ইমরান হোসেনের নেতৃত্বে এই স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন শহীদ খান, রহমান খান, শাহজাহান মুন্সী, আব্দুর রব খান, হানু রাড়ী সহ আরও অনেকে।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কচুয়ায় যুকের আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের নাউলা গ্রামের ধোয়া বাড়ির আব্দুর ...