সর্বশেষ সংবাদ
Home / শিক্ষা ও সাহিত্য / বর্ণিল আয়োজনে শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের একাদশ শ্রেণির ২০১৯-২০ শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন সভা

বর্ণিল আয়োজনে শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের একাদশ শ্রেণির ২০১৯-২০ শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন সভা

স্বপ্নহীন মানুষ লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না…ডাইরেক্টর সৈয়দ মনিরুল ইসলাম পিপিএম
মোঃ কামাল হোসেন খান,মতলব (চাঁদপুর) ঃ
সর্বোন্নত শিক্ষা, সর্বোচ্চ নৈতিকতা, সর্বশ্রেষ্ঠ দেশ প্রেম এই তিনটি মূল আদর্শের উপর ভিত্তি করে ঢাকার মিরপুর-১৪-এ অবস্থিত বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত একটি উন্নত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজ। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের নতুন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন সভা বর্ণিল আয়োজনের মাধ্যমে গত (৫ জুলাই) কলেজ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের ডাইরেক্টর ও অতিঃ ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসলাম পিপিএম।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে ওরিয়েন্টেশন সভভা শুরু হয়। শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের এডমিন অফিসার (কলেজ পরিচালনা প্রশাসন)এর অন্যতম সদস্য জনাব নাজমুস সাকিব এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভার পূর্বে প্রধান অতিথি শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের ডাইরেক্টর ও অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসলাম পিপিএম নতুন শিক্ষার্থীদেরকে ফুল দিয়ে বরন করে নেন। এরপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা প্রধান অতিথি হিসেবে সবক্তব্য রাখেন, শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের ডাইরেক্টর ও অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সেয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে কলেজের ডাইরেক্টর ও অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ (অবঃ) সেয়দ মনিরুল ইসলাম পিপিএম বলেছেন, প্রত্যেকের জীবনে স্বপ্ন থাকতে হয়। স্বপ্নহীন মানুষ কোনোদিন লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না। পৃথিবীর সব মানুষ স্বপ্ন দেখলেও সবার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয় না। কারণ সব মানুষ স্বপ্ন দেখার পাশাপাশি প্রচেষ্টা যুক্ত করে না। তোমরা দেশের সম্পদ। তোমাদের দিকে তাকিয়ে রয়েছে দেশ ও জাতি। এই জাতিকে এগিয়ে নিতে তোমাদেরকে স্ববপ্ন দেখতে হবে। তোমাদেরকে অবশ্যই সেভাবে গড়ে উঠতে হবে। তোমাদের প্রত্যেককে নিজেকে গোল্ডন বয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। তোমরা যদি তোমাদের লক্ষ্য ঠিক করতে পারো তাহলে তোমরা অবশ্যই সফলকাম হবে।

পুলিশ স্মৃতি কলেজের ডাইরেক্টর ও অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম তিনি আরো বলেন, যারা স্বপ্ন দেখার পাশাপাশি প্রচেষ্টা যুক্ত করে, তাদের সব স্বপ্ন বাস্তবায়ন না হলেও অনেক স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়। তাই আমি শিক্ষার্থীদের অনুরোধ জানাবো স্বপ্ন দেখতে। সেই স্বপ্ন শুধু পরিবার ও নিজের জন্য নয়। স্বপ্ন দেখতে হবে দেশ ও সমাজের জন্য এবং পরিবারের জন্য। এই স্বপ্নের সঙ্গে প্রচেষ্টাকে যুক্ত করতে হবে।

অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম তিনি বলেন, পরীক্ষায় ভালো ফল লাভের পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থী যেনো ভালো মানুষ হয়ে জীবন গড়তে পারে সে ব্যাপারেও শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজ সর্বদা সচেষ্ট থাকে। এজন্য নিয়মিত পড়াশুনার পাশাপাশি সব প্রকার শিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হয়। এই কলেজে সর্বোচ্চ গুনগত মমানসম্মত শিক্ষা,সর্বোচ্চ নৈতিকতা ও দেশপ্রেম অর্জনই আমাদের লক্ষ্য উদ্দেশ্য।

অতিরিক্ত ডিআইজি (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম বলেন, আমাদের শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী, অভিভাবকরা সারাবছর কঠোর পরিশ্রমের মধ্য দিয়ে পার করেন। সবার সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে আমরা পুরো শিক্ষাবর্ষে এক সঙ্গে এগিয়ে চলি এবং একটি সেরা ফলাফল অর্জনে সক্ষম হই।

বাংলাদেশ হবে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড উল্লেখ করে অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ভবিষ্যদ্বাণী দিয়েছিলেন, এ দেশ হবে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড। আমরা বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই ভবিষ্যদ্বাণীকে সত্য করবো।

তিনি বলেন, সোনার বাংলা গড়ার জন্য বঙ্গবন্ধু আমাদের যে স্বপ্ন দেখিয়েছেন, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে আমাদের মাটিতে হাত দিতে হবে। হাত পা গুটিয়ে বসে থাকলে হবে না, আমাদেও মেধাভিত্তিক শিক্ষা বিস্তারে প্রসার ঘটাতে হবে।

ভারতের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এপিজে আবদুল কালামের একটি বইয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) বলেন, মানুষের স্বপ্নের সঙ্গে যখন প্রচেষ্টার যুক্ত হয়, তখন ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ফোর্স তৈরি হয়। ইলেকট্রিক ফোর্স যেমন অনেক শক্তিশালী, ম্যাগনেটিক ফোর্সও অনেক শক্তিশালী। সেই ফোর্স তোমাদেরকে স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছে দিতে সাহায্য করে, স্বপ্নের ঠিকানায় নিয়ে যায়। তাই তোমাদের সবার কাছে দেশের জন্য, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলার জন্য এবং নিজের জন্য স্বপ্ন দেখো এবং সেটার প্রতিপল ঘটাও।

অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম তিনি আরো বলেন, পরীক্ষায় ভালো ফল লাভের পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থী যেনো ভালো মানুষ হয়ে জীবন গড়তে পারে সে ব্যাপারেও শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজ সর্বদা সচেষ্ট থাকে। এজন্য নিয়মিত পড়াশুনার পাশাপাশি সব প্রকার শিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হয়। এ কলেজটি মেধাভিত্তিক শিক্ষা বিস্তারে এলাকায় বিশেষ ভুমিকা রাখছে।

তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা যেন মেধা, মূল্যবোধ, দেশাত্মবোধের সমন্বয় ঘটিয়ে এমন একটি প্রজন্ম তৈরি করি- যারা বাংলাদেশকে পৃথিবীর মানচিত্রে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে।

উল্লেখ্য বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত সর্বোন্নত শিক্ষা, সর্বোচ্চ নৈতিকতা, সর্বশ্রেষ্ঠ দেশ প্রেম এই তিনটি মূল আদর্শের উপর ভিত্তি করে ঢাকার মিরপুর-১৪-এ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ১৯৯৯ ইং সালে। প্রতিষ্ঠানটি পুলিশ সদস্যদের কল্যানে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স কর্তৃক স্থাপিত ও পরিচালিত। যার বর্তমানে পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে ইন্সপেক্টর জেনারেল বাংলাদেশ পুলিশের ড.মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)। আর এর ডাইরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী,অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসলাম। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমকম (ব্যবস্থাপনা) এবং আই.ই.আর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে এম.এড (প্রথম শ্রেণি) ডিগ্রিধারী দেশে ও বিদেশে বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তিনি প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনায় অভিজ্ঞ। কলেজটিকে তিনি নিজের সন্তানের মতো পরিচালনা করছেন। প্রতিদিন তিনি সকাল ৯টায় অফিসে এসে রাত ১০-১১টা পর্যন্ত কলেজ ক্যাম্পাসে অবস্থান করেন। তার বলিষ্ট ও দক্ষ নেতৃত্বে এ কলেজটি দ্রুত সুনাম করছে। যতই দিন যাচ্ছে ততোই শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজটি পিএসসি,জেএসসিস,এসএসসি এবং এইচএসসি ফলাফলে দেশের অনেক নামি-দামী কলেজকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছে। এ কলেজটি সৈসয়দ মনিরুল ইসলাম ১৯৭১ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঢাকে মহান মুক্তিযদ্ধে যে সকল পুলিশ সদস্য শহীদ হয়েছিলেন সেসসকল শহীদ পুলিশ সদস্যদের স্মৃতির স্মরনে এ কলেজটি নির্মাণ করেন। বর্তমানে এ কলেজটি একটি উন্নত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সারা দেশে শিক্ষা প্রসারের যে আন্দোলন তার গতিকে আরো ত্বরান্বিত করে যুগোপযোগী বিশ্বমানের আধুনিক মানব-সম্পদ সৃষ্টির লক্ষ্যে চলছে যাবতীয় একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্র। এখানে উন্নত পাঠদান পরিকল্পনা, সুদক্ষ পরিচালনা এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মেধাবী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ ডিগ্রিধারী শিক্ষকবৃন্দের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় শিক্ষার গুনগত মানবৃদ্ধি ও আধুনিক ধ্যান-ধারনা প্রয়োগে সেরা ফলাপফল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন অতিরিক্ত ডিআইজি বাংলাদেশ পুলিশ (অবঃ) সৈয়দ মনিরুল ইসসলাম পিপিএম।
এ কলেজের নিয়ম-কানুন ও প্রশাসনিক দক্ষতা এবং পড়াশুনার ভালো পরিবেশের কারনে প্রতি বছরেই ভর্তি হচ্ছেন ঢাকার রাজধানীসহ মিরপুর এবং দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল খেকে। কলেজটি যেভাবে পরিচালিত হচ্ছে আর পড়াশুনায় যেভাবে শিক্ষকরা আন্তরিকতার সহিত পাঠদান করছে তা চোখে না দেখলে বুঝা যাবে না।

এদিকে শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজের নতুন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন সভায় বক্তব্য রাখেন, কলেজের গভর্নিংবডির শিক্ষক প্রতিনিধি সদস্য প্রভাষক মাহমুদুল হাসান, প্রভাষক ও সদস্য মোঃ হাবিব উল্লাহ খন্দকার, প্রভাষষক মোঃ গোলাম কিবরিয়াসহ শিক্ষক ও নতুন শিক্ষার্থীবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মুন্সিরহাট কলেজে নবীন বরণ অনুষ্ঠান

কলেজে মোবাইল ব্যবহার থেকে বিরত থেকে পড়ালেখায় মনোযোগী হতে হবে ……..অ্যাডভোকেট নুরুল ...