সর্বশেষ সংবাদ
Home / অপরাধ / সাটুরিয়ায় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

সাটুরিয়ায় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

আলমাস হোসেনঃ মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় এক যুবলীগ নেতাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে সন্ত্রাসীরা। স্ত্রীকে ছিনতাই এবং কু-প্রস্তাব দেওয়ার মিথ্যা অভিযোগ এনে এ হামলা চালানো হয়। এঘটনায় গুরুতর আহত ওই যুবলীগ নেতাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করার চেষ্টা করলেও বাধা প্রদান করা হয়। শনিবার (২৭ এপ্রিল) সকাল ১১টায় উপজেলার সাটুরিয়া বাজারের দীপক বসাকের বাড়ির সামনে ওই যুবলীগ নেতাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে দীপক ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী।

আহত যুবলীগ নেতা আব্দুল খালেক (৩৮) মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার উত্তর কাউন্নারা গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে। সে সাটুরিয়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল ১১টার দিকে যুবলীগ নেতা আব্দুল খালেক তার ঠিকাদারী কাজে দীপকের বাসার কাছ দিয়ে মোটর সাইকেল যোগে যাওয়ার সময় বসাক পাড়ার দুলাল বসাকের ছেলে দ্বীপক বসাক তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে খালেকের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা চাপাতি, লোহার পাইপ ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে খালেককে প্রকাশ্যে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে মাথা ও সারা শরীরে রক্তাক্ত জখম করে তাকে মৃত ভেবে গুম করার চেষ্টা করে।

এসময় স্থানীয়রা খালেককে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিতে চাইলে সন্ত্রাসী দ্বীপক ও তার বাহিনীর সদস্যরা নিতে না দিয়ে টেনে হেচরে দীপকের বাড়ীতে নিয়ে খালেকের মৃত্যু নিশ্চিত করার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে এলাকার লোকজন জড়ো হয়ে এমন নির্মমতার জোড়ালো প্রতিবাদ করলে খালেককে রেখে সন্ত্রাসী দীপক ও তার বাহিনী পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন মুমূর্ষ অবস্থায় খালেককে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়।

অপবাদের বিষয়ে দীপকের স্ত্রী টুম্পার কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, খালেক আমাকে ছিনতাই করতে কিংবা কখনো কোন কুপ্রস্তাব দেয়নি। এমনকি সে আমাদের বাড়ীতে কোন প্রকার হামলাও করতে আসেনি। খালেক রাজনীতি করে, তার একটা সুনাম আছে। দীপক আমার স্বামী হলেও কিভাবে সে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খালেকের সুনাম নষ্ট করবে এবং কিভাবে তার ক্ষতি করবে সেই পরিকল্পনাই দীর্ঘদিন ধরে সে করে আসছিল। খালেকের উপর হামলার ঘটনাটি সম্পূর্ণ সন্দেহের বশবর্তী হয়ে দীপক ঘটিয়েছে। টুম্পা আরও বলেন, আমার কাছে না শুনে আমার নাম জড়িয়ে সম্পুর্ণ ভুল তথ্যের ভিত্তিতে খালেকের বিরুদ্ধে কয়েকটি মিডিয়ায় মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। এসময় টুম্পা ওই মিথ্যা প্রতিবেদনের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এ ঘটনার পর এলাকাবাসী ক্ষোভের সাথে জানান, সন্দেহের বশবর্তী হয়ে খালেকের উপর যে বর্বরোচিত হামলা এবং প্রকাশ্যে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে তা খুবই নেক্কারজনক। হয়তো সংখ্যালঘুর দোহাই দিয়ে দ্বীপক ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী পার পাওয়ার চেষ্টা করছেন বলেও আশঙ্কা করেন স্থানীয়রা। এ সময় তারা যুবলীগ নেতা খালেকের উপর পরিকল্পিত হত্যাচেষ্টার উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।
এসকল অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্ত দীপক বসাকের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে হামলার শিকার আব্দুল খালেকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ করে বলেন, সম্পূর্ণ পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে দ্বীপক প্রকাশ্য দিবালোকে তার দলবল নিয়ে চাপাতি, লোহার পাইপ ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আমাকে প্রাণে মেরে ফেলতে চেয়েছে।
এ বিষয়ে সাটুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মতিউর রহমান জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

চাঁদপুর শহরে অব্যাহত ডিবি’র নকল হ্যান্ড স্যানিটাইজার উদ্ধার অভিযান

স্টাফ রিপোর্টারঃ চাঁদপুর শহরে ডি‌বি কর্তৃক নকল হ্যান্ড স্যানিটাইজার উদ্ধার অভিযান অব্যাহত ...