সর্বশেষ সংবাদ
Home / বিনোদন / বিনোদন কেন্দ্র ফ্যান্টাসি কিংডমে দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড়!

বিনোদন কেন্দ্র ফ্যান্টাসি কিংডমে দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড়!

আলমাস হোসেনঃ ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি। এই ঈদের সময় সবার চাওয়া-পাওয়া থাকে একটু ভিন্ন রকম। নতুন পোশাক আর সালামির সঙ্গে যোগ হয় পরিবার-পরিজনদের নিয়ে কোথাও বেড়াতে যাওয়া ও আনন্দ করা। আর সেই আনন্দ উপভোগ করতেই ঈদের দিন থেকে দর্শনার্থীরা ভিড় করছেন সাভারের বিনোদন কেন্দ্রখ্যাত ফ্যান্টাসি কিংডমে। দূর-দূরান্ত থেকে প্রিয়জনদের সঙ্গে নিয়ে ছুটে আসছেন বিনোদন পিপাসুরা। এতে উৎসবের আমেজ আরো একটু বৃদ্ধি পেয়েছে বলে মনে করছেন আয়োজকরা।

ফ্যান্টাসি কিংডম ঘুরে দেখা যায়, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ঈদের ছুটিতে দর্শনার্থীদের পদচারণায় কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠেছে আশুলিয়ার জামগড়াস্থ কনকর্ড গ্রুপের থিমপার্ক ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্স। ঈদের দিন থেকে শুরু করে তৃতীয় দিনেও বিনোদন কেন্দ্র ফ্যান্টাসি কিংডমে অব্যাহত রয়েছে দর্শনার্থীদের পদচারণার সেই ঢল। পার্কটিতে সব বয়সী বিনোদনপ্রেমীদের জন্য বিভিন্ন রকমের রাইডগুলোও ছুটে চলছে আপন গতিতে। সেখানে দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করতে নতুন নতুন রাইড সংযোজনের পাশাপাশি নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা।

এবার ঈদের আনন্দকে কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিতে ফ্যান্টাসি কিংডমের নতুন সংযোজন ‘রক অ্যান্ড রোল’ এবং ‘৯ডি (ভিআর)’ সিনেমা। নতুন এই সংযোজন এবারের ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে তুলেছে বহুগুণে। বিনোদনের সব সুযোগ-সুবিধা নিয়ে গড়ে ওঠা এই ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্সে আরো রয়েছে ফ্যান্টাসি কিংডম, ওয়াটার কিংডম, এক্সট্রিম রেসিং (গো কার্ট), রিসোর্ট আটলান্টিস এই চারটি বিশ্বমানের বিনোদনকেন্দ্র। বিশ্বমানের রাইড ‘রক অ্যান্ড রোল’ এবারের ঈদকে করবে আরো রকিং। রোলিং এই রাইডের সঙ্গে ঈদের আয়োজনকে আরো জমজমাট করতে সঙ্গে রয়েছে ডিজে মিউজিক।

২০০২ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করা দেশের প্রথম এই থিম পার্কে রয়েছে রোলার কোস্টার, শান্তা মারিয়া, ম্যাজিক কার্পেটসহ আনন্দদায়ক ও রোমাঞ্চকর বেশকিছু রাইড এবং বেড়ানোর অনেক জায়গা। যা এরই মধ্যে বিনোদন পিপাসু ছোট-বড় সবার কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। রয়েছে তিন তারকা মানের রেস্টুরেন্ট আশু ক্যাসেল ও ওয়াটার টাওয়ার ক্যাফে। চমৎকার ও আকর্ষণীয় সব দেশি ও বিদেশি খাবারের সমারোহ রয়েছে এই রেস্টুরেন্টগুলোতে। এ ছাড়াও পুরো পার্কের ভেতর ছড়িয়ে রয়েছে আরো অনেক ছোট ছোট ফুড কোর্ট। সেখানে পাবেন মুখরোচক সব খাবার ও ফাস্ট ফুড। বিনোদনের এই রাজ্যে রয়েছে গিফট শপ, এগুলোতে পাওয়া যায় রকমারি সব গিফট আইটেম। ঈদ উপলক্ষে পার্ক কর্তৃপক্ষ পার্কটিকে মনোমুগ্ধকর আলোকসজ্জায় সজ্জিতসহ ডিজে শো ও বিশেষ প্রমোশনের ব্যবস্থা করেছেন।

সুবিশাল জলরাজ্যে বিনোদন এক অভাবনীয় সুযোগ, যা কিনা কনকর্ড ওয়াটার কিংডমেই সম্ভব। মাটির নিচ দিয়ে মনোমুগ্ধকর ও আকর্ষণীয় ভার্চুয়াল অ্যাকোয়ারিয়াম টানেল পার হয়ে প্রবেশ করতে হয় ওয়াটার কিংডমে। কৃত্রিমভাবে সৃষ্ট সাগরের উত্তাল ঢেউ তৈরি করা রাইড ওয়েভ পুল এই পার্কের সবচেয়ে আকর্ষণীয় রাইড। রাইড লাইক দ্য উইন্ড উইথ এক্সট্রিম রেসিং ‘গো-কার্ট’। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো কনকর্ড এক্সট্রিম রেসিং নিয়ে এসেছে বিশ্বমানের গো-কার্ট রেসিং, যা কার রেসিং দুনিয়ার এক অনন্য সংযোজন। ছোট চার চাকার প্রায় মাটি ছুঁই ছুঁই এই রেসিং কারগুলো দর্শনার্থীদের দেবে রেসিংয়ের এক দারুণ অভিজ্ঞতা। আন্তর্জাতিক মানের এই গো-কার্টগুলো ব্যবহৃত হয় ফর্মুলা ওয়ান বিজয়ী মাইকেল শুমাকারের ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে। বিশ্বের আধুনিক সব রাইড নিয়ে গড়ে ওঠা এই বিনোদন কেন্দ্রে কৃত্রিম সমুদ্র সৈকত ওয়েবপুল, বিশাল উঁচু জায়গা থেকে আঁকাবাঁকা পথ পেরিয়ে জল ভর্তি পুলে পড়ার জন্য স্লাইড ওয়ার্ল্ড, টিউব স্লাইড লেজি রিভার, ওয়াটার ফল, ডুম স্লাইড, লস্ট কিংডম, প্লে জোন, ড্যান্সিং জোনের মতো মজারসব রাইডও আছে এখানে।

কর্মব্যস্ত জীবনের ক্লান্তি দূর করতে ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্সের বিশেষ আকর্ষণ তিন তারকা বিশিষ্ট রিসোর্ট আটলান্টিস। এই রিসোর্টের আধুনিক সুযোগ-সুবিধার মধ্যে রয়েছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রুম, কেবল টিভি, রেস্টুরেন্ট, কার্ড সুবিধা, সাইবার ক্যাফে, টেলিফোন, কার পার্কিং, লন্ড্রি সার্ভিস, কনফারেন্স সেন্টারসহ আরো অনেক কিছু। এ ছাড়া বিনোদনের জন্য রয়েছে ডলবি ডিজিটাল সাউন্ড সিস্টেম সিনেমা হল, বিলিয়ার্ড, পুল ও এয়ার হকিসহ নানা রকম গেমের আয়োজন। রিসোর্ট আটলান্টিসে আসা অতিথিদের জন্য রয়েছে বার-বি-কিউ নাইট ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের চমৎকার সব আয়োজন।

গাজীপুরের মৌচাক থেকে থেকে পরিবারের সঙ্গে বেড়াতে আসা জান্নাতুল ফেরদৌস জেরিন বলেন, ঈদের ছুটিতে সাভারের ফ্যান্টাসি কিংডমে এসে অনেক মজা করছি। সব ধরনের রাইডে চড়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আনন্দ উপভোগ করার মজাই আলাদা। অন্যদিকে রাজধানীর গুলশান থেকে সকাল থেকেই ফ্যান্টাসি কিংডমে রয়েছেন লোকমান হাকিম ও তার পরিবার। তাদের মতো আরও অনেক দর্শনার্থীও বিভিন্ন স্থান থেকে যোগ দিয়েছেন এখানে। সবাই মিলে বিভিন্ন রাইডে চড়ে আর নেচে-গেয়ে মাতিয়ে তুলছেন পুরো পার্ক এলাকা।

ফ্যান্টাসি কিংডমের প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান জানান, বিনোদনপ্রেমীদের জন্য নতুন নতুন খেলাসহ বিভিন্ন প্যাকেজের আয়োজন করা হয়েছে। সবার জন্য আলাদা আলাদা সুবিধা সম্বলিত প্যাকেজও করা হয়েছে এখানে। এছাড়া নিরাপত্তা নিশ্চিতে আমাদের নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরও সহযোগিতা নেওয়া হয়েছে। জনসমাগমকে কেন্দ্র করে যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

নিরাপত্তার ব্যাপারে সাভার সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. তাহমিদুল ইসলাম বলেন, সবাই যাতে নির্বিঘ্নে আনন্দ করতে পারেন আমরা সেদিকে বেশি নজর দিয়েছি। সেখানকার নিরাপত্তা নিশ্চিতে সিসি ক্যামেরা, পোশাকে-সাদা পোশাকে নিরাপত্তা প্রহরী আর আনসার সদস্যের পাশাপাশি পুলিশও রয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চিত্রনায়িকা সিমলার একি হাল!

বিনোদন প্রতিবেদক ঢাকাই ছবির চিত্রনায়িকা সিমলা দীর্ঘ অনেকদিন ধরেই নেই চলচ্চিত্র পাড়ায়। ...