সর্বশেষ সংবাদ
Home / শিক্ষা ও সাহিত্য / ইউএনও’র কাছে অভিযোগ : অভিভাবকদের মানববন্ধন কারচুপির ভোটার তালিকা দিয়ে আকুবপুর স্কুল নির্বাচনের তফসিল

ইউএনও’র কাছে অভিযোগ : অভিভাবকদের মানববন্ধন কারচুপির ভোটার তালিকা দিয়ে আকুবপুর স্কুল নির্বাচনের তফসিল

মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধি
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বজার থানাধীন আকুবপুর ইয়াকুব আলী ভুইয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচনে কারচুপি ও উদ্দেশ্য প্রনোদীত ভোটার তালিকা করে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার অভিযোগ এনে প্রার্থীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর লিখিত দিয়েছেন। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শিখা রানী রায়ের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাসহ ভোটার তালিকা সংশোধন করে পূনরায় তফসিল ঘোষনার দাবিতে অভিভাবক মহল সোমবার দুপুরে ওই স্কুল মাঠে মানববন্ধন করেছে। আগামী ৩ সেপ্টেম্বর উক্ত নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। এ নিয়ে ওই এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আকুবপুর ইয়াকুব আলী ভুইয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শিখা রানী রায় একটি মহলের ইন্ধনে পরিকল্পিত ভাবে কারচুপি ভোটার তালিকা করেন। ৩৭০ জন ভোটারের মধ্যে প্রায় ৮০ জন ভোটারের নামের তালিকা সঠিক নয়। মৃত ও প্রবাসীদের নামে ভোটার তালিকা করায় ওই পরিবারের লোকজন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের উপর ক্ষুদ্ধ হয়েছেন। যারা সঠিক ভোটার এবং নির্বাচনে অংশ গ্রহন করবেন তাদেরকে কৌশলে ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। বক্তারা আরো বলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শিখা রানী রায় প্ররোচিত হয়ে আচরণ বিধি লঙ্গন করেছেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিল্লাল হোসেন, সফিকুল ইসলাম, নিজাম খান, শিরিনা বেগম, ছাদেকুর রহমান, হেলাল মিয়া। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সালাউদ্দিন মেম্বার, জালাল মিয়া, দুলাল মিয়া, ফোরকান খান, মামুন মিয়া, আরিফ খান, আব্দুল মান্নান মাষ্টার, আবুবকর খান ও আকলিমা আক্তারসহ অর্ধশতাধিক অভিভাবক মহল। বিষয়টির ব্যাপারে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শিখা রানী রায় বলেন, আমি যথাযথ নিয়ম মেনেই ভোটার তালিকা প্রস্তুত করেছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগকারী শিরিনা বেগম জানান, আমার স্বামী জীবন মিয়া দীর্ঘদিন যাবত প্রবাসে থাকার পরও তার নামে ভোটার করা হয় (ভোটার নং ২৭২)। ভোটার তালিকা দেখার জন্য বিদ্যালয়ে গেলেও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কোন অভিভাবককে তালিকাটি দেখাননি। সফিকুল ইসলাম জানান, আমার ৬ষ্ঠ ও ১০ম শ্রেণিতে দু’জন শিক্ষার্থী রয়েছে। আমি যেন প্রার্থী হতে না পারি সে জন্য ১০ম শ্রেনির শিক্ষার্থীর নামে আমাকে ভোটার করা হয়েছে (ভোটার নং ৩২২)। তিনি আরো জানান, ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীর ভোটার তালিকায় শফিকুল ইসলামের স্থলে পরিকল্পিত ভাবে ইসলাম মিয়া লিপিবদ্ধ করেছে (ভোটার নং ২৬)। বিল্লাল হোসেন জানান, আমার ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

রোল নং ০১ থাকা সত্বেও ভোটার তালিকায় আমার নামের স্থলে সুফিয়া খাতুনের নাম রয়েছে। ছাদেকুর রহমান জানান, ভোটার তালিকায় আমার নামের স্থলে হাফেজ সাদেকুর রহমান লিপিবদ্ধ করেছে (ভোটার নং ১৮৭)। মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেও আমি প্রার্থীতা নিয়ে শংকিত। হেলাল মিয়া জানান, আমার নামের স্থলে ভোটার তালিকায় ছামদানী লিপিবদ্ধ করেছে (ভোটার নং ১৭)। বিধি মোতাবেক খসড়া ভোটার তালিকা শ্রেণি কক্ষে শিক্ষার্থীদের পাঠ করে শোনানোর কথা থাকলেও তা করা হয়নি এবং নোটিশ বোর্ডেও খসড়া ভোটার তালিকা টানানো হয়নি। নিজাম খান জানান, ভোটার তালিকায় আমার নামের স্থলে দেলোয়ার খান লিপিবদ্ধ করেছে (ভোটার নং ৫১)।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার অভিষেক দাস উক্ত বিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা শিকার করে জানান, অভিযোগ গুলো প্রিজাইডিং অফিসারের নিকট পাঠানো হয়েছে। তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।
নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার ও উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা কবির আহামেদ জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আমাকে নির্বাচন সম্পন্ন করার ক্ষমতা দিয়েছে। সে মোতাবেক আমি তফসিল ঘোষণা করেছি।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শরণখোলায় এক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুলতান আহম্মেদ গাজী ও সৈয়দ আল-আমিন সরকারি টেনিংয়ে নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন

নাজমুল ইসলাম সবুজ শরণখোলা ঃ নিউজল্যান্ডে সরকারি প্রশিক্ষনে যাচ্ছেন শরণখোলা উপজেলা সদরেরর ...