সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / দুর্গা উৎসবের মহা নবমী পূজা অনুষ্ঠিত ॥ আজ বিকেলে বিজয়া দশমী ও চৌধুরী ঘাটে বিসর্জন

দুর্গা উৎসবের মহা নবমী পূজা অনুষ্ঠিত ॥ আজ বিকেলে বিজয়া দশমী ও চৌধুরী ঘাটে বিসর্জন

মানিক দাস ॥ আনন্দ ঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রাণের উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। গত শুক্রবার ষষ্ঠীবিহিত পূজার মাধ্যমে স্ব স্ব ম-পে দেবীকে বরণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদানে রয়েছে সচেষ্ট। সকল পূজা ম-পেই পরিলক্ষিত হয়েছে পুলিশ সদস্যসহ আনসার সদস্যদের উপস্থিতি। রাস্তায় টহল দিচ্ছে র‌্যাব-১১ সদস্যগণ। এছাড়া রয়েছে পূজা ম-পের স্বেচ্ছাসেবকগণ। সর্বত্রই বিরাজ করছে উৎসবমুখর পরিবেশ। গতকাল সোমবার দুর্গা পূজার মহা নবমী বিহীত পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিসর্জনের মধ্য দিয়ে দেবী দুর্গার ৫ দিন ব্যাপী শারদীয় উৎসবের সমাপনী ঘটবে।

শুক্রবার ষষ্ঠী বিহীত পূজার মধ্য দিয়ে দুর্গা পূজার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করা হয়। গতকাল সোমবার দুর্গা পূজার মহা নবমী বিহীত পূজা সকাল থেকেই মন্ডপে মন্ডপে শুরু হয়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে নবমী পূজার আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়। নবমী পূজায় সকাল থেকে মন্দিরগুলোতে সব বয়সী ভক্ত অঞ্জলী নিতে ভিড় জমিয়েছিল। শহরের কালী বাড়ি মন্দিরে ও রামকৃষ্ণ আশ্রম ও মিশন, গোপাল জিউর আখড়া, পুরাণবাজার হরিসভা মন্দির, দাসপাড়া সহ বিভিন্ন মন্দিরে হাজারো ভক্তের সমাগম ঘটে। বিগত বছরের তুলনায় এ বছর মন্দিরে ভক্তদের সমাগম ছিল উপচেপড়া।

নবমী পূজা শেষে পুরোহিতগণ মন্ত্র পাঠের মাধ্যমে ভক্তদেরকে ফুল বেলপাতা ও দুর্বার সংমিশ্রণে অঞ্জলী প্রদান করেন। বিকেলের পর থেকে চাঁদপুর জেলার প্রতিটি উপজেলা থেকে ভক্তরা শহরের স্থাপিত পুজামন্ডপগুলোতে দর্শনের জন্য ভিড় করতে থাকেন। এ বছর চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার সবচেয়ে ব্যয় বহুল কয়েকটি পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সরজমিনে হাজীগঞ্জ উপজেলা সদর ঘুরে দেখা যায়, রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম, নবদুর্গা সংঘ, ত্রিশুল সংঘ ও ত্রিনয়নী সংঘ সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করে ভারতীয় আদলে শারদীয় দুর্গা পূজা উদ্যাপন করেছে। যা চাঁদপুর জেলার অন্যান্য উপজেলার তুলনায় ভিন্ন আঙ্গিকে মন্ডপগুলোকে সজ্জিত করা হয়েছে। এসব পূজারী সংঘরা রাস্তার উপরে সুউচ্চ তোরণ নির্মাণ করেছে। যা ভক্তদের দৃষ্টি আকৃষ্ট করে।

পূজার স্থানগুলোতে ককসেটের তৈরি বিভিন্ন ধরনের প্রতিমূর্তি তৈরি করেও স্থাপন করা হয়েছে। এসব মন্ডপগুলোতে গভীর রাত পর্যন্ত ভক্তরা বিচরণ করে আনন্দ উপভোগ করেন। তবে বড়দের তুলণায় তরুণ তরুণী ও শিশুরাই মন্দিরগুলোতে আনন্দ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জমিয়ে রেখেছিল। জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের ও কালী বাড়ি মন্দির কমিটির সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায় জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমাল ঘোষ জানান, আজ শারদীয় দুর্গা উৎসবের বিজয়া দশমী।

বিকেল সাড়ে ৫টায় স্ব স্ব পূজা মন্ডপ থেকে প্রতিমা নিয়ে শোভাযাত্রা বের করা হবে। রাত ৮টার মধ্যে শহরের চৌধুরী ঘাট এলাকা দিয়ে ডাকাতিয়া নদীতে দেবী দুর্গাকে বিসর্জনের মধ্য দিয়ে আমরা শারদীয় দুর্গা উৎসবের সমাপ্তি ঘটাবো। এছাড়া জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন আমাদেরকে যে নির্দেশনা দিয়েছে আমরা সেই নির্দেশনা অনুযায়ী বিজয়া দশমী উদ্যাপন করব।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দক্ষিণ ছেংগারচর মিয়াজী বাড়ি খানকা শরীফে পবিত্র আজিমুশ^ান ইসলামী জলসা অনুষ্ঠিত

খান মোহাম্মদ কামাল ঃ মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার দক্ষিণ ছেংগারচর মিয়াজী ...