সর্বশেষ সংবাদ
Home / জাতীয় / পিইসি পরীক্ষায় ‘বহিষ্কার’ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

পিইসি পরীক্ষায় ‘বহিষ্কার’ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

অনলাইন ডেস্ক
প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার করা কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বহিষ্কার হওয়া শিশুদের পুনরায় পরীক্ষা নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) স্বতঃপ্রণোদিত এ রুল দেন। একই সঙ্গে এ-সংক্রান্ত শৃঙ্খলা ভঙ্গবিষয়ক প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের গত বছরের জারি করা নির্দেশনার ১১ নম্বর অনুচ্ছেদ কেন অবৈধ হবে না, রুলে তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে।

‘পিইসি পরীক্ষায় শিশু বহিষ্কার কেন’ শিরোনামে একটি দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি আদালতের নজরে এনে এ-বিষয়ক প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এ এম জামিউল হক। শুনানি নিয়ে আদালত ওই রুল দেন। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির মহাপরিচালক, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে ২ সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে আদালত ১০ ডিসেম্বর পরবর্তী আদেশের তারিখ ধার্য করেছেন।

প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় বিভিন্ন স্থানে ১৫ শিশুকে বহিষ্কার করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের এ বিষয়ে নির্দেশনা আছে। নির্দেশনার ১১ অনুচ্ছেদ অনুসারে, শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে উত্তরপত্র ছাড়া কিছুতে লিখে আনলে ও অন্যকে দেখানোয় সহযোগিতা করলে বহিষ্কারের সুযোগ রয়েছে।

আইনজীবী জামিউল হক ফয়সাল আদালতে বলেন, ‘যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের বয়স ১০ বা ১১ বছর। এ বয়সের একজন শিশুকে বহিষ্কার করা তার মানসিক জগতে প্রভাব ফেলবে। তাদের বহিষ্কার করা অনুচিত। বহিষ্কার না করে অন্য উপায় অবলম্বন করা যেতে পারত।’

প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা গত রোববার থেকে শুরু হওয়ার পর সোমবার (১৮ নভেম্বর) পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থানে মোট ১৫ শিশু বহিষ্কার হয়েছে। পরীক্ষায় অসাধুপন্থা অবলম্বন করার অভিযোগে এসব শিশুকে বহিষ্কার করা হয়।

জামিউল হক বলেন, ‘২০১০ সালের শিক্ষা নীতিমালায় এই পিইসি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা গ্রহণ বা তাদের অধ্যয়নের বিষয়ে কোনো কিছুই বলা হয়নি। তাহলে কেন তাদেরকে বহিষ্কার করা হবে। তাদেরকে অনৈতিক উপায় অবলম্বন করার কারণে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানানো হলেও অনৈতিক উপায়টা কী ধরনের ছিল তা উল্লেখ করা হয়নি। শিশুদের কে বা কারা এসব কাজে উৎসাহিত করছে তা-ও খোঁজ নেয়া হয়নি। তাই কেন এসব শিশুদের বহিষ্কার করা হলো তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

১৭ ডিসেম্বর থেকে রাজধানীর যে এলাকায় হর্ন বাজালেই শাস্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রশাসনের কেন্দ্রবিন্দু বাংলাদেশ সচিবালয়ের আশপাশে হর্ন বাজালেই জরিমানা গুনতে হবে ...