সর্বশেষ সংবাদ
Home / বিনোদন / চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে নবান্ন উৎসব পালন

চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে নবান্ন উৎসব পালন

মানিক দাস ॥ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডমি চাঁদপুর জেলা শাখার আয়োজনে নবান্ন উৎসব পালন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে চাঁদপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমি মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এ নবান্ন উৎসব উদ্যাপিত হয়।


সন্ধ্যায় নবান্ন উৎসবের আলোচনা সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিখ এস.এম জাকারিয়ার সভাপতিত্বে ও জেলা কালচারাল অফিসার সৈয়দ আয়াজ মাবুদের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান। এ সময় তিনি বলন, নবান্ন উৎসবকে আমরা খাদ্য উপকরণের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখলে চলবে না।

এ নবান্ন উৎসবে আমরা সংস্কৃতি উৎসবের মাধ্যমে পালন করব। আনন্দঘন অনুষ্ঠানকে আজকে চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমি নবান্ন উৎসবের মাধ্যমে। এই অনুষ্ঠান যদি প্রাকৃতিক পরিবেশে করা হত তাহলে আমরা গ্রামের ঐতিহ্য অবলোকন করতে পারতাম। জেলা শিল্পকলা একাডেমি যদি আগামীতে এ ধরনের নবান্ন উৎসব পালন করে তাহলে এটি যেন গ্রামীণ পরিবেশে অথবা চাঁদপুর ত্রি-নদীর মোহনা এলাকায় করা হয় তাহলে আমরা প্রকৃতির সাথে গ্রামীণ আয়োজনের মাধ্যমে করতে পারব।


অন্যান্য বক্তারা বলেন, এখন আর কৃষক আর কৃষানীর জন্য ধান আসে না। সময় পরিবর্তন হয়েছে, তাই আমরা বিজ্ঞানের যুগে বাস করছি। চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমি নবান্ন উৎসব করে। পিঠা দিয়ে আপ্যায়ন করে। এক সময় গ্রামে নতুন ধান উঠলে এ নবান্ন উৎসব হত। বাড়ি বাড়ি তৈরি হত পিঠা পুলি আর পায়েস। এখন সেই দৃশ্য আর দেখা যায় না।

ঋতু বৈচিত্রের বাংলায় হেমন্ত ঋতুতে নবান্ন উৎসব হয়। নতুন যে অন্ন উঠে তার আয়োজনে বাঙালি আদিকাল ধরে এ উৎসব পালন করে আসছে। জেলা শিল্পকলা একাডেমি আকাশ সংস্কৃতির যুগে মাটির গন্ধ নিতে এই বাঙালিয়ান কৃষ্টিকে ধারণ করতেই এই আয়োজন।

এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত পুলিশ সুপার (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) মিজানুর রহমান চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমির মহাপরিচালক কাজী শাহাদাত, জেলা শিল্পকলা একাডেমির নির্বাহী সদস্য এবং ও মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার চেয়ারম্যান অ্যাড. বদিউজ্জামান কিরন, প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন ও ডাঃ পীযুষ কান্তি বড়–য়া। অতিথিগণ চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন।

সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করে সাফানা নাসরিন মেধা, দিপা রায় চৈতি, সীমান্ত মহাজন, সানজিদা আলম, অনন্যা বনিক, উর্মি মালবিকা ঢালী, সীমান্ত, তাসফিয়া হক, নুরুন্নাহার। নৃত্য পরিবেশন করে আরিফুল ইসলাম, হৃদিতা, মুনতাহা, পিপল দাস, কাইসান সহ আরও অনেকে।

পরে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনভুক্ত নাট্য সংগঠন অনন্যা নাট্য গোষ্ঠীর পরিবেশনায় লোক গীতিময় নাটক রুপভান মঞ্চস্থ হয়। নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন, চন্দন সরকার, মোঃ হানিফ, শহীদ পাটওয়ারী, জয়রাম রায়, বি.এম হান্নান, মানিক দাস, মেহেদী হাসান, মোঃ আলমগীর, শরিফুল ইসলাম, দীপক ভট্টাচার্য্য, রুনা আক্তার আশা, ফাতেমাতুজ্জোহরা, জেরিন, পিংকি ও মারিয়া।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ভক্তের উপর চটেছেন সারা আলী খান

বিনোদন ডেস্ক ছুটি কাটিয়ে নিউইয়র্ক থেকে মুম্বাই ফিরেছেন বলিউড তারকা সারা আলী ...