সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / মানবাধিকার দিবস উদযাপন উপলক্ষে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশন চাঁদপুর জেলা শাখার পক্ষ থেকে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

মানবাধিকার দিবস উদযাপন উপলক্ষে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশন চাঁদপুর জেলা শাখার পক্ষ থেকে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার :: চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেছেন, মানুষের বয়স হলেই তারুণ্য কমে যায়, তা ঠিক নয়। ৮০-৯০ বছর বয়সেও মানুষের তারুণ্য থাকে। তার উজ্জল দৃষ্টান্ত হচ্ছে মাদার তেরেসা। তিনি ওই বয়সেও তরুনদের মত সারা পৃথিবীতে মানবতার সেবায় এগিয়ে এসেছেন। মানবাধিকার নিয়ে এই পৃথিবীতে অনেক কথা রয়েছে। মানবাধিকারের কোথাও কোন কমতি নেই। কিন্তু আমরা তা মানতে পারছি না। নিজের কাজ নিজে না করে আমরা অন্যের উপর নির্ভরশীল হই। অন্যের উপর নির্ভরশীলতা থেকে বিরত থাকতে হবে।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় মানবাধিকার দিবস উপলক্ষ্যে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মানবাধিকার লঙন হচ্ছে বাবা-মা তার সন্তানের প্রতি সচেতন না থাকা। কিন্তু এর বিপরীতে পিতা-মাতার সাথে অশোভন আচরণ করা যাবে না। তারা অনেক সময় অন্যায়মূলক আদেশ দেন। তা না মেনে পিতা-মাতাকে ভদ্রতার সহিত বুঝিয়ে দিতে হবে।

 

 

 

জেলা প্রশাসক বলেন, আমাদের দেশের সংবিধানে মানবাধিকার সম্পর্কে অনেক কথা রয়েছে। কিন্তু তা অনেকেই মানছেন না। প্রথমেই নিজের পরিবারেই মানবাধিকার অনপুস্থিত। মানবাধিকার সম্পর্কে নিজে জানবেন, সমাজের মানুষকেও জানাতে হবে।

ডিসি বলেন, যেসব নারীরা আমাদের সমাজে নির্যাতিত হচ্ছে, তারা কারা। তারাত আমাদেরই মা কিংবা বোন। তাদের প্রতি অন্যায় আচরণ ও নির্যাতনের ক্ষেত্রে আমাদের কি ভূমিকা।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বেশী করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর উপর লেখা বই শিক্ষার্থীদের পড়তে হবে। কারণ জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে কুইজ প্রতিযোগিতা হবে। ওই প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাই অংশগ্রহন করবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম জাকারিয়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশনের চাঁদপুর জেলা শাখার চেয়ারম্যান সিনিয়র সাংবাদিক গাজী রহমতুল্লাহ ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ক্রাইম রিপোর্টার ফাউন্ডেশন সাধারণ সম্পাদক চাঁদপুর অনলাইন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মোঃ বিপ্লব সরকার তিনি তার বক্তব্যে বলেন মানুষের পাঁচটি মৌলিক চাহিদা পূরণ হচ্ছে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার সবচেয়ে বড় পাওনা খাদ্য, বস্ত্র, শিক্ষা, চিকিৎসা ওবাসস্থান

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা সমাজ সেবা উপপরিচালক রজত শুভ্র সরকার, সহকারী পরিচালক মো. গোলাম আজম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান মাহমুদ ডালিম, মো. সামিউল ইসলাম, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশন চাঁদপুর জেলার সহ-সভাপতি নাজিম উদ্দিন পাটওয়ারী, কো-অর্ডিনেটর কাজী হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আক্কাছ খান, দপ্তর সম্পাদক জসিম উদ্দিন, মহিলা সম্পাদিকা নুরজাহান কুমকুম, সদস্য নাজমা, সুফিয়া আক্তার, রুমা, অ্যাড. সালাহ উদ্দিন, সাংবাদিক জসিম উদ্দিন, আবু সুফিয়ান, ইসমাইল খান বাদল, হুমায়ুন কবির, আমান উল্যাহ ও জাহিদ হাসান প্রমূখ।

আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে মানবাধিকার বিষয়ে কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় এবং বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে নগদ অর্থ পুরস্কার প্রদান করেন জেলা প্রশাসকসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

পুরস্কার পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলেন- টেকনিক্যাল স্কুল এ- কলেজের নবম শ্রেনীর ছাত্রী কুলসুমা আক্তার মীম, হাসান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র অনুভব সাহা, একই বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র নিহাল।

আলোচনা পূর্বে একটি র‌্যালী সার্কিট হাউজ থেকে বের হয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয় সামনে এসে শেষ হয়।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের

মতলব উত্তরে ভূয়া মাতৃত্বকালীন ভাতা উত্তোলন করছেন ইউপি সদস্য হোসনেয়ারা মতলব উত্তর ...