সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / ইউনাইটেড হাসপাতালে রেখে যাওয়া নবজাতকে সমাজসেবা অধিদপ্তর কতৃক হস্তান্তর
সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কমকতা মনিরুল ইসলামের উপস্থিতিতে শিশু কে হস্তান্তর করা হয়

ইউনাইটেড হাসপাতালে রেখে যাওয়া নবজাতকে সমাজসেবা অধিদপ্তর কতৃক হস্তান্তর

স্টাফ রিপোটার : চাঁদপুর শহরের মরহুম করিম পাটোয়ারী সড়কের দি ইউনাইটেড হাসপাতালে জন্ম নেওয়া এক নব জাতককে রেখে তাঁর স্বজনরা পালিয়ে চলে যাওয়ার পর হাসপাতাল কতৃপক্ষ সরকারের সমাজ সেবা অধিদপ্তরের আওতাধীন শিশু কল্যাণ বোডের মাধ্যমে নব জাতককে হস্তান্তর করা হয়। এমন তথ্য নিশ্চিত করে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের গঠিত তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

ঘটনা সুএে জানা যায়, গত ১১ ডিসেম্বর ইউনাইটেড হাসপাতালে একজন প্রসুতি মা তার নাম ঠিকানা এবং সকল পরিচয় গোপন করে তাঁর গভের সন্তান কে প্রসব করানোর জন্য এ হাসপাতালে ভতি হন।হাসপাতাল কতৃপক্ষ তাদের চিকিৎসকদের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে ঐ প্রসুতি মা কে নরমাল ডেলিভারি করান। এ ডেলিভারীর পর ঐ প্রসুতি মা ও তাঁর স্বজনরা উন্নত চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখানোর কথা বলে হাসপাতাল কতৃপক্ষের চোখে ফাঁকি দিয়ে নবজাতককে রেখে চলে যান।
এ অবস্থায় হাসপাতাল কতৃপক্ষ কিছু সময়ের পর রোগী ও স্বজনদের অনুপস্থিতি দেখে হাসপাতাল কতৃপক্ষের সন্দেহ হয়। তাৎক্ষণিক হাসপাতালের কাগজে দেয়া তথ্য অনুযায়ী নাম ঠিকানা যাচাই করে দেখেন, হাসপাতালের দেয়া রোগীদের তথ্য মিথ্যা ও তা সঠিক নয়। এর পরই হাসপাতাল কতৃপক্ষের পক্ষে পরিচালক সুলতানা আক্তার সেতু চাঁদপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করে। যার নং ৯১৩।শুধু তাই নয়, হাসপাতাল কতৃপক্ষ এ নবজাতক শিশু টি কে পরবতী পরিচযা ও লালন পালন করার বিষয়ে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের আওতাধীন শিশু কল্যাণ বোড কে লিখিত ভাবে অবহিত করে।শুধু তাই নয়, হাসপাতালের পরিচালক সুলতানা আক্তার সেতু এ বিষয়টি চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও কে ও লিখিত ভাবে অবহিত করেন।
পরবতীতে শিশু কল্যাণ বোডের মাসিক সভায় জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমানএ শিশু টির বিষয়ে সভায় উপস্থিত সকল সদস্যদের কে অবহিত করেন। নব জাতক শিশুটির কোন পযায়ে রয়েছে তা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কাছে জানতে চাইলে তা ব্যাখ্যা দেন। পাশাপাশি শিশু কে বিকল্প পরিচযার জন্য একটি পরিবারের আবেদন রয়েছে বলে সভায় জানানো হয়। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে সভায় শিশু আইন অনুযায়ী আবেদন কৃত পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।
এ সিদ্ধান্তের আলোকে গত ২ জানুয়ারী চাঁদপুর জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কমকতা মনিরুল ইসলামের উপস্থিতিতে শিশুটি নারায়নগঞ্জের একটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
এদিকে হাসপাতাল থেকে নবজাতক কে রেখে পলায়নের এ ঘটনাটির খবর গণমাধ্যম কমীদের কাছে চলে আসায় স্হানীয় ও জাতীয় পএিকা গুলোতে “” চাঁদপুরে আবারও নবজাতক রেখে স্বজনদের পলায়ন “শীর্ষক সংবাদ প্রকাশ হলে এ ঘটনার বিষয়ে চাঁদপুরের স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ঘটনার সত্যতার বিষয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কমকর্তা ডাঃ আশরাফ চৌধুরী কে আহবায়ক করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নিদেশ প্রদান করা হয়।
গঠিত তদন্ত কমিটি এ ঘটনার তদন্ত শেষে স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। তাতে শিশুটি ইউনাইটেড হাসপাতাল কতৃপক্ষ পরবর্তীতে সরকারের আইন কে অনুসরণ করে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করে এবং সরকারের এ সংস্থা শিশু আইন অনুযায়ী শিশু টি কে আবেদন কৃত একটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয় । তদন্ত প্রতিবেদনে আরো উল্লেখ করা হয়, উক্ত শিশু টি যে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়, সে পরিবারটি সমাজ সেবা অধিদপ্তরের আওতাধীন শিশু কল্যাণ বোডের কাছে শিশুটি লালন পালন করার আবেদন করে, পরবতীতে তাঁরা ঐ পরিবারের বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে তাদের কে দেয়া হয়। তবে এজন্য কোনো অথের লেনদেন করা হয়নি এবং শিশু বিক্রি হয়নি।
এ তদন্ত প্রতিবেদনের বিষয়ে গঠিত তদন্ত কমিটির আহবায়ক ডাঃ আশরাফ চৌধুরীর সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে, তিনিবলেন, আমরা তদন্ত করে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী রিপোর্ট জমা দিয়েছি। তদন্ত প্রতিবেদনে যা উল্লেখ করেছি এটাই সত্যি,এর বাইরে তিনি কোনো কথা বলতে রাজী হননি।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

১৩নং ওয়ার্ডে নৌকা প্রতীকের উঠোন বৈঠক ও গণসংযোগকালে একজন স্যুট পরিহিত লোক আমার কাছে যে সম্মান পাবেন, একজন রিক্সাওয়ালা ভাইও সেই সম্মানটাই পাবেন ……………………এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল

স্টাফ রিপোর্টার : এবারের নির্বাচন, এই এলাকাসহ ১৩নং ওয়ার্ডে অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের ...