সর্বশেষ সংবাদ
Home / অপরাধ / মতলবে ১০ টাকা মূল্যের চাল বিক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ

মতলবে ১০ টাকা মূল্যের চাল বিক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ

মতলব প্রতিনিধি: মতলব দক্ষিণ উপজেলার উপাদী উত্তর ইউনিয়নে ১০ টাকা মূল্যের চাউল বিক্রয়ে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৬ এপ্রিল এই ইউনিয়নে চাউল বিক্রয়ের সময় হতদরিদ্ররা চাউল না পেয়ে ফিরে গেছেন বলে অভিযোগ করেন।
সরেজমিনে জানা যায়, ওই ইউনিয়নের ১০ টাকা মূল্যের চাউল বিক্রয়ের ডিলার শাহআলম হতদরিদ্রদের মাঝে চাউল বিক্রি না করে অন্যত্র চাউল বিক্রি করে দিচ্ছেন। এছাড়া চাউল ক্রয় করতে আসা একাধিক ব্যক্তি চাউল ক্রয় করতে না পেরে খালি হাতে বাড়ি ফিরে গেছেন। স্থানীয়দের অভিযোগ ডিলার তাদের চাউল না দিয়ে পয়ালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হুমায়ূন কবিরের কাছে ১৯ বস্তা চাউল বিক্রি করে দিয়েছে।
চাউল না পাওয়ার ক্ষোভ নিয়ে ওই ইউনিয়নের ধূলাউরা গ্রামের মৃত কেরামত আলী ছেলে শাহজাহান, আঃ মান্নানের স্ত্রী হাওয়া বেগমসহ রাহেলা বেগম, রুহুল আমিন,সলেমান মিয়াজী অভিযোগ করে বলেন, আমাদের কাছে চাউল বিক্রি না করেন ডিলার ওই মাষ্টারের কাছে ১৯ বস্তা চাউল বিক্রি করে দিয়েছে। সে গাড়িতে করে প্রথমে ৭ বস্তা এবং পরে ১২ বস্তা চাউল নিয়ে গেছে। এই নিয়ে চারবার হলো আমরা কোনো চাউল কিনতে পারিনি। এদিকে ওই ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য মুন্নি আক্তার জানান, আমার সামনে দিয়েই হুমায়ূন মাষ্টার ১২ বস্তা চাউল নিয়ে গেছে।
শিক্ষক হুমায়ূন কবির বলেন, আমি ৭ বস্তা চাউল নিয়ে কার্ডধারীদের বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছি। এই ছাড়া কোনো চাউলের বস্তার কথা আমার জানা নেই। ডিলার শাহ আলম বলেন, সঠিক নিয়মে চাউল বিক্রি করা হচ্ছে। কার্ডের বাহিরে কাউকে চাউল দেওয়া হচ্ছে না।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা হক বলেন, এক ব্যক্তি একাই এত বস্তা চাউল কোনো ভাবেই নিতে পারে না। বিষয়টি জেনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

পুঠিয়ায় দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর পুঠিয়ায় ৩২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ১০০ গ্রাম হেরোইনসহ দু’জন  মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ (২৮ মে) বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বানেশ্বর বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) এর সদস্যরা। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, উপজেলার বানেশ্বর এলাকার বাসিন্দা হায়দার আলীর ছেলে মিলন (৩৩) ও চারঘাট উপজেলার বাসিন্দা মৃত ইদ্রীস আলীর ছেলে কামরুল ইসলাম (৩০)। পরে তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রেজাউল ইসলাম। থানা সূত্রে জানা গেছে, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের পুলিশ পরিদর্শক সেলীম বাদশাহ্ এর নেতৃত্বে একটি দল উপজেলার বানেশ্বর বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১০০ গ্রাম হেরোইন ও ৩৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ দু’জন মাদক চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করে। পরে তাদের বিরুদ্ধে আর্মড পুলিশ বাদী হয়ে পুঠিয়া থানায় মাদক আইনে মামলা দায়ের করে তাদের থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, তাদের থানায় হস্তান্তরের পর মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে দু’জনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।