সর্বশেষ সংবাদ
Home / আন্তর্জাতিক / চীনের গবেষণাগার থেকেই করোনার উৎপত্তি:পম্পেও

চীনের গবেষণাগার থেকেই করোনার উৎপত্তি:পম্পেও

অনলাইন ডেস্ক
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। ট্রাম্পের মতো তিনিও মনে করেন, চীনের গবেষণাগারে থেকেই এর উৎপত্তি হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও রোববার আইবিসি টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘চীনের উহান শহরের একটি গবেষণাগার থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে যথেষ্ট দলিল-প্রমাণ রয়েছে।’

গত ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ চীনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় এবং পরবর্তীতে তা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার একই অভিযোগ করে চীনের গৃহীত নীতির ব্যাপক সমালোচনা করেছিলেন ট্রাম্প। যদিও ট্রাম্পের ওই বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা আগে যুক্তরাষ্ট্রেরে ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স’র পরিচালকের দপ্তর এক প্রতিবেদনে করোনাভাইরাসের ‘মানবসৃষ্ট হওয়ার তত্ত্ব’ প্রত্যাখ্যান করে।

আমেরিকার ১৭টি সামরিক ও বেসামরিক গোয়েন্দা সংস্থা এই দপ্তরের অধীনে কাজ করে।

ওই দপ্তরের প্রতিবেদনের ব্যাপারে আইবিসি’র এক প্রশ্নের উত্তরে অবশ্য পম্পেও বলেছেন, ‘আমি গোয়েন্দাদের বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়েছি এবং একথা বলার কোনো সুযোগ নেই যে, তারা ভুল করছেন।’

সিআইএর সাবেক প্রধান পম্পেও এবিসিকে বলেন, কোভিড -১৯ ভাইরাস যে মানবসৃষ্ট নয়, এতে তিনি একমত। তবে উহান ল্যাব থেকে যে এটি ছড়িয়েছে, তার কাছে এর যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। যদিও নিজের বক্তব্যের সপক্ষে তিনি কোনও এ প্রমাণ হাজির করতে পারেননি।

এদিকে মার্কিন গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, চীন সরকার উহান শহরের করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতা গোপন রেখেছিল এই কারণে যাতে এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী স্টোর করা যায়।

চীন সরকার যুক্তরাষ্ট্রের এই অভিযোগকে রাজনৈতিক উদ্দেশপ্রণোদিত উল্লেখ করে প্রত্যাখ্যান করেছে। একইসঙ্গে বেইজিং দাবি করছে, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রেরর তুলনায় চীন অনেক বেশি সফলতার পরিচয় দিয়েছে।

চীনের সরকারি তথ্য অনুযায়ী দেশটিতে করোনাভাইরাসে মাত্র ছয় হাজার ৮০০ মানুষ নিহত হয়েছে। অথচ যুক্তরাষ্টে এ পর্যন্ত করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ৬৯ হাজার মানুষ।

করোনা মহামারি নিয়ে শুরু থেকেই চীনের ওপর খড়গহস্ত ট্রাম্প। তিনি একাধিকবার এই মহামারি ছড়ানোর জন্য চীন সরকারকে দায়ী করেছেন।

গত সোমবার সতর্ক করে দিয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘চীনকে দায়ী করার অনেক পথ রয়েছে। মোদ্দা কথা আমরা তাদের ওপর খুশি নই। আমরা পুরো পরিস্থিতি নিয়ে সন্তুষ্ট নই। কারণ, আমরা বিশ্বাস করি, এটি উৎস থেকে বন্ধ করা যেত।’

শুধু চীন নয়, করোনা নিয়ন্ত্রণে তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। করোনা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতা এবং চীনের পক্ষাবলম্বনের অভিযোগ এনে ইতিমধ্যে সংস্থাটির আর্থিক অনুদান বন্ধ করে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

যেসব উপসর্গে চিকিৎসকরাও অবাক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের থাবায় বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। এর মধ্যে কয়েকটি দেশে ...