সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / ঠাকুরগাঁওয়ে আরও করোনা আক্রান্ত ১৪, মৃত্যু ১

ঠাকুরগাঁওয়ে আরও করোনা আক্রান্ত ১৪, মৃত্যু ১

 

মোঃ আবুল হাসান ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিদিন বেড়েই চলেছে করোনা রোগী। গতকাল ২৪ জন শনাক্তের হওয়ার পর আজ  আরও ১৪ জনের করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত চিকিৎসাধীন ৪২ বছরের এক পুরুষ মৃত্যুবরণ করেছে। এ নিয়ে জেলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ৭ জনে।

৩ আগস্ট সোমবার রাতে ঠাকুরগাঁও  জেলা সিভিল সার্জন ডা. মাহাফুজার রহমান সরকার ফেসবুকে স্টাটাস দিয়ে এই বিষয়টি জানিয়েছেন।

তিনি জানান, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ৪২ বছর বয়সী পুরুষ রোগী রংপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।  তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ ক্রনিক কিডনি ডিজিজ এবং শ্বাসকষ্ট রোগে ভুগছিলেন। তাছাড়া আজ নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত ১৪ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৯ জন, বালিয়াডাঙ্গীতে ২ জন এবং পীরগঞ্জে ৩ জন।

তিনি আরও জানান, জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪২৭ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭ জন। এছাড়াও ২৪৯ জন সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ী ফিরে গেছেন।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

ঠাকুরগাঁওয়ে ভারীবর্ষণে পানিতে ভেসে গেল কোটি টাকার পাকা রাস্তা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায়  ভারীবর্ষণে পানিতে ভেসে গেছে কোটি টাকা দিয়ে ছয় মাস আগে নির্মাণ করা জাউনিয়া-সাবাজপুর গ্রামের চলাচলের একমাত্র পাকা রাস্তা। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে জাউনিয়া, সাবাজপুরসহ কয়েকটি গ্রামের হাজার মানুষ। স্থানীয়রা জানায়, মাটি ভরাট করে উঁচু না করে রাস্তা নির্মাণ ও নিম্নমানের পাকাকরণ কাজের জন্য দ্বিতীয় বারের মত সাবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের পশ্চিম পার্শের রাস্তাটি পানিতে ভেসে গেছে। এতে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে মূল শহরের সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে জাউনিয়া, সাবাজপুরসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের। সাবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ জানান, রাস্তাটি পাকাকরণ করার এক বছরও হয়নি। অতিবৃষ্টির ফলে প্রায় ৮০ শতাংশ রাস্তা ভেসে গেছে পানিতে। রাস্তাটি সংস্কারের জন্য স্থানীয় প্রকৌশলীকে বলা হয়েছে। দ্রুত সংস্কার না করা গেলে বিদ্যালয়ে যাতায়াতসহ স্থানীয়দের চরম ভোগান্তি পোহাতে হবে। উপজেলা প্রকৌশল সুত্রে জানা যায়, গেল ছয় মাস আগে প্রায় কোটি টাকা বরাদ্দে জাউনিয়া বাজার থেকে সাবাজপুর গ্রাম পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরণ করা হয়। কাজটি সম্পন্ন করার সময় স্থানীয়দের দাবি ছিল রাস্তাটি উঁচু করে মাটি ভরাটের পর পাকা কারণ করার। তবে সেটি না হওয়ার কারণে পানিতে ভেসে গেছে সব। এবিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মাইনুল ইসলামের সাথে ...