সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / সাতক্ষীরায় জাদুঘর স্থাপনে জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে -প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ

সাতক্ষীরায় জাদুঘর স্থাপনে জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে -প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ

ইব্রাহিম খলিল, সাতক্ষীরা: সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, সাতক্ষীরায় জাদুঘর স্থাপনের জন্য ইতোমধ্যে এক একর চার শতক জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। খুব দ্রুতই জাদুঘর স্থাপনের কাজ শুরু করা হবে। এছাড়া সাতক্ষীরা শিল্পকলা একাডেমির অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বিস্তারে প্রয়োজনীয় সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হবে। বুধবার (২১ অক্টোবর) রাতে সাতক্ষীরা সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসন আয়োজিত সুধী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সুধী সমাবেশে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান।

আরও বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল হামিদ, বর্তমান অধ্যক্ষ প্রফেসর বাসু দেব, শিল্পকলা একাডেমির সদস্য সচিব মোসফিকুর রহমান মিল্টন, কবি পল্টু বাসার, সংগীত শিল্পী রোজ বাবু, শামীমা পারভীন রতœা, ইন্দ্রজিৎ সাধু প্রমূখ। সমাবেশে সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য মুস্তফা লুৎফুল্লাহ সাতক্ষীরায় এক হাজার আসন বিশিষ্ট শিল্পকলা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের দাবিতে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।  এসময় সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদ নিজ বক্তব্যে ‘পলাশী থেকে ধানমন্ডি’র উপর নাটক নির্মাণ করে সারাদেশে প্রচারের অনুরোধ জানান। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম যাত্রাসহ গ্রামীণ সংস্কৃতির অনুসঙ্গগুলো টিকিয়ে রাখতে উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ জানান।  সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে রুখতে মুক্তবুদ্ধির চর্চা, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড সম্প্রসারণ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিকাশের বিকল্প নেই। এজন্য সাতক্ষীরায় নাট্য উৎসব, আবৃত্তি উৎসব, বই মেলাসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিকাশে নানা উদ্যোগ যেমন গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হয়েছে, তেমনি করোনাকালেও অনলাইনে এটা চলমান আছে। আগামীতেও সাংস্কৃতিক উৎসব আয়োজন করা হবে। পরে স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মঞ্চস্থ হয়।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

লোহাগাড়ায় বিনামূল্যে মাস্ক করলেন ইউএনও আহসান হাবীব জিতু

দেলোয়ার হোসেন রশিদী  দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি  করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ধাপে সংক্রমণ প্রতিরোধে ...