সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / হিন্দু সম্প্রদায়ের স্বরসতি পূজার প্রস্তুতি পুরোদমে চলছে

হিন্দু সম্প্রদায়ের স্বরসতি পূজার প্রস্তুতি পুরোদমে চলছে

মানিক দাস ॥ হিন্দু সম্প্রদায়ের বিদ্যার্চনায় স্বরসতি পূজার প্রস্তুতি চাঁদপুর শহরে পুরোদমে চলছে। মন্দিরে মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারী হিন্দু সম্প্রদায়ের বিদ্যার্চনায় স্বরসতি পূজা অনুষ্ঠিত হবে। সেইলক্ষ্যে শহরের কালীবাড়ি মন্দির, গোপাল জিউর আখড়া ও পুরান বাজার হরিসভা মন্দিরে ফরিদপুরের পাল বংশিয় সম্প্রাদেয়ের জীবন পাল ও গবিন্দ পাল দিন রাত পরিশ্রম করে নিজের সন্তান ও ২০/২৫ জন কারিগর নিয়ে স্বরসতী প্রতিমা তৈরির কাজ করে যাচ্ছেন।
গত ১৫/২০ দিন ধরে জীবন পাল শহরের গোপাল জিউর আখড়া মন্দির ও পুরান বাজার হরিসভা মন্দিরে স্বরসতি প্রতিমা তৈরীর কাজ করে যাচ্ছে।

একই ভাবে গবিন্দ পাল শহরের নতুন বাজার শ্রী শ্রী কালিবাড়ি মন্দিরে স্বরসতির প্রতিমূর্তি তৈরী করছে। খরকুটা, বাঁশ,আঠালো কাঁচা মাটির প্রলেপ দিয়ে কাঠামো তৈরি করতে ব্যস্হ সময় পার করছে। এরা সবাই নিজ সন্তান সহ কম করে হলে ও ১৫/২০ জন করে কারিগর নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। স্বরসতি পূজার আর মাত্র বাকী ২৬ দিন। এ কদিনের মধ্যে প্রায় কয়েকশ প্রতিমা তৈরি করতে হবে, সে জন্য জীবন পাল ও গবিন্দ পাল কারিগর নিয়ে দিন রাত পরিশ্রম করে স্বরসতি প্রতিমার কাজ করে যাচ্ছেন। হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ স্বরসতিকে বিদ্যার দেবী হিসেবে গননা করে থাকেন। সেই লক্ষে পাড়া মহল্লায়, মন্দিরে আবার কেউ কেউ বাসা বাড়িতে ও স্বরসতি পূজা করে থাকেন। শিক্ষার্থীরা তাদের স্ব স্ব শিক্ষা নিকেতন গুলোতে ও স্বরসতি পূজা করে থাকে। যুবসমাজ সবচেয়ে বেশি আনন্দঘন পরিবেশে স্বরসতি পূজার আয়োজন করে থাকে।
চাঁদপুর জেলা ও সদর উপজেলা পূজা উদ্ যাপন পরিষদ সূত্রে জানাযায়, এ বছর স্বরসতি পূজার ঐতিহ্য শোভা যাত্রা করা হবেনা। বিশ্ব ব্যাপী করোনা মহামারির কারণে কেন্দ্রীয় পূজা পরিষদের নির্দেশ মতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ইতি মধ্যে সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভা করা হয়েছে। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা সম্মতি প্রদান করেছে শোভা যাত্রা না করার জন্য।

পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

চাঁদপুর শহরে প্রায় ৩ শতা‌ধিক বখাটে ও ইভটিজারদের বড় ও রঙ্গিন চুল কর্তণ

 মানিক দাস // চাঁদপুর শহরের ন পুরানবাজারে অভিভাবক, স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্রী ...