সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / বড় স্টেশন মোলহেডে পর্যটকদের চলাচলে বাঁধা হয়ে দাড়িয়ে হকারদের দখল দারিত্ব

বড় স্টেশন মোলহেডে পর্যটকদের চলাচলে বাঁধা হয়ে দাড়িয়ে হকারদের দখল দারিত্ব

 মানিক দাস // চাঁদপুর শহরের ত্রি নদীর মোহনা বড় স্টেশন মোলহেড পর্যটকদের চলাচলে বড় বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছে হকার। তারা মোলহেডের খোলাস্হানের একটি বিরাট অংশ দখল করে অস্হায়ী ভাবে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে জনসাধারনের চলাচলের পথ বন্ধ করে দিয়েছে। দূর দূরান্ত থেকে ভ্রমন প্রিয় মানুষ অথাৎ পর্যটকদের নিবিঘ্নে ঘুরে ও স্বাচ্ছন্দে প্রিয় সন্তানদের নিয়ে ঘুরে বেরাতে পারছেনা হকারদের কারণে।
সোমবার সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রক্তধার সামনের অংশে ভাম্যমান বেশ কিছু সংখক হকার অস্হায়ী ভাবে কাপড় চোপর দিয়ে ঝুপরি নির্মান করে চটপটির বিক্রি করছে। চটপটি বিক্রির পাশাপাশি ২০/৩০ টি করে চেয়ার টেবিল বসিয়ে চলাচলের প্রতিবন্ধকতা সৃস্টি করে রেখেছে। ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে সাবেক জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমানের নির্দেশে বর্তমান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক আব্দুল্লা আল মাহমুদ জামানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে এ স্হানটির সুন্দর পরিবেশ ফিরিয়ে আনা হয়েছিল।
কিন্তু কোভিড ১৯ কিছুটা সিথিল হয়ে আসলে সেই স্হানটি হকাররা আবার দখল করে নিয়েছে। প্রতি শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটির দিনে চাঁদপুর শহরের বড় স্টেশন মোলহেডে চাঁদপুর ছাড়াও আশ পাশের জেলা ও উপজেলা থেকে শত শত পর্যটক তাদের সন্তান এবং পরিবারের সদস্যদের নিয়ে প্রকৃতির রূপ অবলোকন করতে এখানে ছুটে আসে। এ সব হকারদের দখল দারিত্বের কারণে পর্যটকরা সাচরছন্দে এখানে ভ্রমন করতে পারছে। চাঁদপুরের নবাগত জেলা প্রশাসকের সু দৃস্টি কামনা করছে সাধারন জনগন। একটি সূত্র থেকে জানাযায়, স্হানীয় একটি চক্র এ স্হানে হকারদের বসীয়ে প্রতিদিন চাঁদা আদায়করে থাকে। তবে হকারদের সাথে কথা বললে তারা জানায়, আমরা কাউকে চাঁদা দেইনা। তবে হকারদের একটা সমিতি আছে, আমরা যারা সদস্য আছি তারা সমিতিতে টাকা জমা রাখি। এ জমা টাকা দিয়ে আমরা ব্যবসার কাজে লাগিয়ে থাকি।
পোস্টটি শেয়ার করুন
Share

Leave a Reply

x

Check Also

১০০ জনকে নিয়ে হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদক করোনাভাইরাসের কারণে দ্বিতীয় বছরের মতো পহেলা বৈশাখে মঙ্গল শোভাযাত্রার কার্যক্রম ...